16, Oct-2021 || 03:23 pm
Home কলকাতা মোদীর নাম মাহাত্ম্যে পশ্চিমবঙ্গে পুড়ল ৪২ লাখের যন্ত্র

মোদীর নাম মাহাত্ম্যে পশ্চিমবঙ্গে পুড়ল ৪২ লাখের যন্ত্র

হীরক মুখোপাধ্যায় (১০ মার্চ ‘২১):- নরেন্দ্র মোদীর নামাঙ্কিত চলচ্চিত্র তৈরীর উদ্যোগ নেওয়ার জন্য দক্ষিণ ২৪ পরগনায় পুড়িয়ে দেওয়া হলো চলচ্চিত্র প্রযোজকের ৪২ লাখের সড়ক নির্মাণ যন্ত্র। ষড়যন্ত্রের অভিযোগে বিদ্ধ রাজ্যের শাসকদল ‘তৃণমূল কংগ্রেস’।

ঘটনার অভিঘাতে জেলা পুলিস-এর সীমাহীন অপদার্থতায় মেয়াদ শেষের সময়েও মুখ পুড়ল পশ্চিমবঙ্গের ‘তৃণমূল কংগ্রেস’ পরিচালিত মা-মাটি-মানুষ-এর সরকারের।

অভিযোগ, “রাতের অন্ধকারে ৪২ লাখ টাকার যন্ত্র পুড়িয়েও পুলিসের নজিরবিহীন গাফিলতিতে অপরাধীরা এখনো অধরা।”

অভিযোগ কর্তা তথা টলিউড ফিল্ম ইণ্ডাস্ট্রীর নবাগত প্রযোজক স্বপন নস্কর জানিয়েছেন, “গত ২৭ ফেব্রুয়ারী কোলকাতার এক বিলাসবহুল হোটেলে আমার সংস্থার অন্যতম হিন্দী চলচ্চিত্র ‘এক ঔর নরেন’-এর শুভ মহরত হয়।
মহরতের পরে প্রচারের লক্ষ্যে ৫ মার্চ আমার বাড়ির চারপাশ সহ কোলকাতার বিভিন্ন জায়গায় ওই ছবির ব্যানার লাগিয়েছিলাম। কিন্তু পরের দিন সকালে উঠে দেখি কে বা কারা ওই ব্যানারগুলো ছিঁড়ে নষ্ট করে মাটিতে ফেলে দিয়েছে।
এর পাশাপাশি, ৬ মার্চ কামালগাছি-বারুইপুর বাইপাস সংলগ্ন রাজপুর সোনারপুর অঞ্চলে রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে থাকা আমার ৪২ লাখ টাকা দামের রাস্তা নির্মাণের উপযোগী যন্ত্র (এপোলো সেন্সর পাওয়ার ফিনিসার) টাকেও আগুন লাগিয়ে ভস্মীভূত করে দেওয়া হয়।
এবিষয়ে স্থানীয় সোনারপুর থানাতে অভিযোগপত্র জমা দিলেও দুষ্কৃতীরা আজও অধরা।”

নবীন প্রযোজকের উপর এহেন অত্যাচার মেনে নিতে পারছেননা কোন ব্যক্তি বা সংগঠনই। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সরকার বিরোধী বিভিন্ন সংগঠনের কর্তাব্যক্তিরা জানিয়েছেন, “নরেন্দ্র মোদী-র জীবন নির্ভর একটা চলচ্চিত্র নির্মাণের কথা ঘোষণা করেছিলেন স্বপন নস্কর, তার জেরেই রাজ্যের শাসকদলের অত্যাচার নেমে এলো স্বপনবাবুর উপর। একজন নবীন প্রযোজকের উপর এরকম দুর্ব্যবহার কাঙ্ক্ষিত নয়।”

যদিও পশ্চিমবঙ্গের শাসকদলের ঘনিষ্ঠ বিভিন্ন শিবির থেকে জানানো হয়েছে, “বঙ্গীয় চলচ্চিত্র সংস্কৃতি সঙ্ঘ-র আড়ালে টলিউড ফিল্ম ইণ্ডাস্ট্রী দখল করতে চাইছে ‘ভারতীয় জনতা পার্টি’-র আশীর্বাদ ধন্য চলচ্চিত্র নির্দেশক মিলন ভৌমিক। গত ২৭ ফেব্রুয়ারী মহরতের আগে মিলনবাবু বলে রেখেছিলেন, মহরতে হাজির থাকবেন ‘ভারতীয় জনতা পার্টি’-র সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক তথা পশ্চিমবঙ্গের পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীয় ও প্রদেশ অধ্যক্ষ দিলীপ ঘোষ। কিন্তু ওইদিন ওঁনারা কেউই ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হননি। ফলে সংবাদমাধ্যমের কাছে ওই অনুষ্ঠানের মূল্য কমে যায়। নির্বাচনের আগে আশানুরূপ প্রচার থেকেও বঞ্চিত হয় ‘এক ঔর নরেন’। প্রচারের খামতি দূর করার জন্যই এ এক সম্মিলিত অপকাণ্ড বিশেষ।”

দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুর থানা থেকে জানানো হয়েছে, “একটা অভিযোগ জমা পড়েছে, সবকিছু খতিয়ে দেখা হচ্ছে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

শান্তিপুর বিধানসভার উপনির্বাচনের জয়ের আশায় দেবী দুর্গার কাছে প্রার্থনা বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকার

প্রদীপ মজুমদার,নদীয়াঃশান্তিপুর বিধানসভার উপনির্বাচনের জয়ের আশায় দেবী দুর্গার কাছে প্রার্থনা রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকারের। গত তিন বছর ধরে রানাঘাট...

শিশুর নাক খুবলে কামড়ে নিলো কুকুর

নিজস্ব সংবাদদাতা, হাবরাঃ বুধবার মহাষ্টমীর বিকেলবেলা বাদুড়িয়া থানার মোড় এলাকায় ২ বছরের এক শিশুর নাক খুবলে কমড়ে নিলো একটি কুকুর। রক্তাক্ত অবস্থায়...

বেড়াচাঁপা চৌমাথায় ফ্লেক্স ছেঁড়াকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা

নিজস্ব সংবাদদাতা, দেগঙ্গাঃ মঙ্গলবার গভীররাতে দেগঙ্গা ব্লকের অন্তর্গত বেড়াচাঁপা চৌমাথায় তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, মহিলা...

শ্রীভূমি দুর্গা পূজা প্যান্ডেলে বন্ধ করে দেওয়া হল লেজার শো

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলকাতাঃ তিনটি বিমানের পাইলট অভিযোগ করেছিলেন এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলে। এর পরই কলকাতা শ্রীভূমি দুর্গা পূজা প্যান্ডেলে বন্ধ করে দেওয়া হল...