16, Jan-2021 || 05:58 pm
Home অন্যান্য কলকাতা-ঢাকা মৈত্রী পরিষদের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষিত

কলকাতা-ঢাকা মৈত্রী পরিষদের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষিত

রাজীব দত্ত, রাজারহাট: দুই বাংলার এক বিশেষ প্রয়াসে সৃষ্টি হয়েছে, 2018 সালে কলকাতা ঢাকা মৈত্রী পরিষদ, মূলত সাহিত্য ভিত্তিক পরিষদ গঠিত হয়েছে। দুই বাংলার সাহিত্যকে সমৃদ্ধ ও সুদৃঢ় করতে এই পরিষদ এর মূল উদ্দেশ্য। দুই বাংলার বাংলা ভাষায় সংস্কৃতি এবং তার মাধুর্যকে অন্য মাত্রা এনে দেওয়ার লক্ষ্যে এই কলকাতা ঢাকা মৈত্রী পরিষদের কর্তৃপক্ষ গ্রহণ করেছেন 85 জন কার্যনির্বাহী সদস্য একত্রিত হয়ে তারা এই কাজে ব্রত গ্রহণ করেছেন। তাদের থেকে পাওয়া প্রেসবিজ্ঞপ্তি নিম্নে উল্লেখ করা হলো।

দুই বাংলার সাহিত্য,সংস্কৃতি, মৈত্রী, সম্প্রীতির বন্ধন অটুট,সমাজসেবা এবং সারা বিশ্বের বাংলা ভাষাভাষী মানুষ তথা বাংলা ও বাঙালির মহান আদর্শকে আন্তর্জাতিক স্তরে উন্নীত করা ও প্রসারিত করার লক্ষ্য ও উদ্দেশ‍্যে কলকাতা ঢাকা মৈত্রী পরিষদের গঠিত হয়েছে।

দু‘বাংলার মৈত্রী ইতিহাস ঐতিহ্য রক্ষায় গঠিত কলকাতা-ঢাকা মৈত্রী পরিষদের সভাপতি মোঃ রফিকুল আনোয়ার ও সাধারণ সম্পাদক ড. মহীতোষ গায়েন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়, গত ২৭ সেপ্টেম্বর পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পঞ্চায়ন ও গ্রাম উন্নয়ন মন্ত্রী অধ্যাপক শ্যামল সাঁতরা এক ভার্চুয়াল সভায় বাংলাদেশের দৈনিক নোয়াখালী প্রতিদিন সম্পাদক মোঃ রফিকুল আনোয়ারকে সভাপতি এবং কলকাতা সিটি কলেজের অধ্যাপক ড. মহীতোষ গায়েনকে কলকাতা ঢাকা মৈত্রী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে ঘোষণা করেন। এরই ধারাবাহিকতায় আজ ৪ নভেম্বর ঘোষিত হলো ৮৫ সদস্য বিশিষ্ট ২০২০-২০২২ সালের পূর্ণাঙ্গ কমিটি। ঘোষিত কমিটির অন্যান্য কর্মকর্তারা হলেন, সহ-সভাপতি-সুব্রত দাস (পশ্চিমবঙ্গ), শ্রী গৌতম ঘোষ (পশ্চিমবঙ্গ), সাইফ উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী (বাংলাদেশ), বিমান বিহারী সেন (পশ্চিমবঙ্গ), ড. শৈবাল চট্টোপাধ্যায় (পশ্চিমবঙ্গ), টিএম শওকত আলী মোস্তফা (বাংলাদেশ), অধ্যক্ষ ফরিদা আক্তার খানম (বাংলাদেশ), আ ব ম মহিউদ্দিন খান চৌধুরী (বাংলাদেশ), এ এন এম শেখ আব্দুল্লাহ (বাংলাদেশ), বিধান ভৌমিক (বাংলাদেশ), সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক- জয়ন্ত সিংহ (পশ্চিমবঙ্গ), যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক- বোরহান উদ্দিন (বাংলাদেশ), মোঃ আহছান উল্যাহ (বাংলাদেশ), মোঃ জহিরুল ইসলাম তানভীর (বাংলাদেশ), গুলজার হোসেন সৈকত (বাংলাদেশ), শ্রী কৌশিক দত্ত (পশ্চিমবঙ্গ), সাংগঠনিক সম্পাদক- ড. বিকাশ মৈত্র (পশ্চিমবঙ্গ), সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক- মিজানুর রহমান শিব্বির (বাংলাদেশ), শান্তনু দত্ত বর (পশ্চিমবঙ্গ), প্রচার সম্পাদক- এমবি কানিজ (বাংলাদেশ), সহ-প্রচার সম্পাদক- নাহিদা আক্তার (বাংলাদেশ), গণযোগাযোগ সম্পাদক-রবীন দত্ত (পশ্চিমবঙ্গ), সহ-গণযোগাযোগ- মোঃ ইসমাইল হোসেন টিটু (বাংলাদেশ), প্রকাশনা সম্পাদক- আখতারুজ্জামান আসিফ (বাংলাদেশ), সহ-প্রকাশনা সম্পাদক-মহঃ ইয়াসিন পাঠান (পশ্চিমবঙ্গ), যুব সম্পাদক- আব্দুল হালিম রকি (বাংলাদেশ), সহ-যুব সম্পাদক-শ্রী তারক দেবনাথ (পশ্চিমবঙ্গ), মহিলা সম্পাদক-জয়ন্তী রায় (পশ্চিমবঙ্গ), সহ-মহিলা সম্পাদক-সুমি দাস (পশ্চিমবঙ্গ), দপ্তর সম্পাদক-আরশাদ আলী (পশ্চিমবঙ্গ), সহ-দপ্তর সম্পাদক-নুরুল ইসলাম (পশ্চিমবঙ্গ), সমাজ কল্যাণ সম্পাদক- নিশীত বরণ সিংহ রায় (পশ্চিমবঙ্গ), সহ-সমাজ কল্যাণ সম্পাদক-সৈয়দ মোঃ রহিম উল্যাহ (বাংলাদেশ), কোষাধ্যক্ষ- সূপর্ণা রায় (পশ্চিমবঙ্গ), সহ-প্রচার কোষাধ্যক্ষ-মোঃ নাছির উদ্দিন (বাংলাদেশ), আন্তর্জাতিক সম্পাদক-অতনু মিত্র (পশ্চিমবঙ্গ), সহ-আন্তর্জাতিক সম্পাদক-মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান (বাংলাদেশ), শিক্ষা সম্পাদক-শাহাদত হোসেন নিশাদ (বাংলাদেশ), সাংস্কৃতিক সম্পাদক-আভা সরকার মন্ডল (পশ্চিমবঙ্গ), সহ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক-সারমিন হাসান (বাংলাদেশ), গবেষণা সম্পাদক- ড. এমদাদ হোসেন (পশ্চিমবঙ্গ), সহ-গবেষণা সম্পাদক- নাদিয়া আকতার (বাংলাদেশ), মানব কল্যাণ সম্পাদক- মোঃ আবুল কালাম আজাদ (বাংলাদেশ), সহ-মানব কল্যাণ সম্পাদক-মালবিকা চক্রবর্তী (পশ্চিমবঙ্গ),তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক- হারুন অল রশিদ (বাংলাদেশ), সহ-তথ্য প্রযুক্তি সম্পাদক- তমালী ভট্টাচার্য (পশ্চিমবঙ্গ), সাহিত্য সম্পাদক- তৌহিদুল ইসলাক কনক (বাংলাদেশ), সহ-সাহিত্য সম্পাদক- শাহনাজ আক্তার (বাংলাদেশ), পাঠাগার সম্পাদক- বাপ্পী সাহা (বাংলাদেশ), সহ-পাঠাগার সম্পাদক- কুন্তল তেওয়ারী (পশ্চিমবঙ্গ), আপ্যায়ন সম্পাদক- আব্দুল কাদের হাজারী (বাংলাদেশ), সহকারী আপ্যায়ন সম্পাদক- অহনা রায় চৌধুরী (পশ্চিমবঙ্গ), কার্যনির্বাহী সদস্যরা হলেন- ড. চিত্তরঞ্জন রায় (পশ্চিমবঙ্গ), ড. সুবীর মন্ডল (পশ্চিমবঙ্গ), শ্রী দেবাশিস ত্রিপাঠী (পশ্চিমবঙ্গ), মানিক মজুমদার (বাংলাদেশ), শিলু চক্রবর্তী ঘোষ (পশ্চিমবঙ্গ), ড. সংঘমিত্র সাহা (পশ্চিমবঙ্গ), সংহিতা মিত্র (পশ্চিমবঙ্গ), গোপা কর্মকার (পশ্চিমবঙ্গ), অর্নিবান সরকার (পশ্চিমবঙ্গ), সুপ্রিয় ঘোষ (পশ্চিমবঙ্গ), মোঃ গোলাম কিবরিয়া (বাংলাদেশ), প্রদীপ অধিকারী (পশ্চিমবঙ্গ), শেখ মতিয়ার রহমান (পশ্চিমবঙ্গ), নাজমা খাতুন (পশ্চিমবঙ্গ), পৌলমি মাইতি (পশ্চিমবঙ্গ), সুমন চন্দ্র ভৌমিক (বাংলাদেশ), ফখরুল ইসলাম (বাংলাদেশ), বাসুদেব মাইতি (পশ্চিমবঙ্গ), মারইয়াম মনিকা (বাংলাদেশ), মোঃ রিয়াদ হোসেন (বাংলাদেশ), শ্রী রাজীব দত্ত (পশ্চিমবঙ্গ), শ্রী বিপুল কুমার ঘোষ (পশ্চিমবঙ্গ), সুমীত দাসগুপ্ত (পশ্চিমবঙ্গ), মোঃ মেহেদী হাসান মুন্না (বাংলাদেশ), লাবনী দে (পশ্চিমবঙ্গ), মহ. ওলিউল ইসলাম (পশ্চিমবঙ্গ), পমি সাহা (পশ্চিমবঙ্গ), অনামিকা তাহের রূপা (বাংলাদেশ), মনিরা আফরোজ মীম (বাংলাদেশ)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

মাধ্যমিক ও প্রাথমিক শিক্ষক নেতৃত্বদের নিয়ে তৃনমুল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চ্যাটার্জীর সাথে সাক্ষাৎ অশোক রুদ্রের

নিজস্ব প্রতিনিধি,কলকাতাঃ মকর সংক্রান্তির পূন্যতিথিতে তৃনমূল কংগ্রেসের কোর কমিটির সদস্য অশোক রুদ্রের নেতৃত্বে মাধ্যমিক ও প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির নেতৃত্বরা আজ তৃনমুল কংগ্রেসের...

মকরসংক্রান্তি আরো একবার মনে করিয়ে দেয় ভারতবর্ষে বৈচিত্র্যের মাঝে ঐক‍্যের কথাটি

অর্পিতা সিনহা,বাঁকুড়া (১৪জানুয়ারী,২০২১): পৌষ সংক্রান্তি বা মকর সংক্রান্তি শুধুমাত্র বাঙালি সংস্কৃতিতে নয় গোটা ভারতবর্ষে ভিন্ন ভিন্ন নামে এই উৎসব উদযাপিত করা হয়।...

পশ্চিমবঙ্গ মানে মেলা ও উৎসবের রাজ্য

মোহাম্মাদ শাহজাহান আনসারী, বাঁকুড়া:-পশ্চিমবঙ্গ মানে মেলা ও উৎসবের রাজ্য । এই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে নানা শিল্পী আছেন যাঁদের তাক লাগানো শিল্পকলা আমরা...

সমস্ত নিয়ম কানুন মেনে মুর্গী চাষ

মোহাম্মাদ শাহজাহান আনসারী, বাঁকুড়া:-বাঁকুড়া জেলার ওন্দা অঞ্চলের নতুনগ্রাম এলাকায় সমস্ত নিয়ম কানুন মেনে মুর্গী চাষ করা হয় ।এই চাষের সাথে স্থানীয় মানুষেরা...