05, Jun-2020 || 11:25 am
Home দেশ দেশের ছয় রাজ্যের ৫০০ গ্রামীণ উদ্যোগ এসভিইপি কর্মসূচির অধীনে এখন মাস্ক তৈরি...

দেশের ছয় রাজ্যের ৫০০ গ্রামীণ উদ্যোগ এসভিইপি কর্মসূচির অধীনে এখন মাস্ক তৈরি করছে : ডঃ রাজেশ গুপ্ত

হীরক মুখোপাধ্যায় (৪ মে ‘২০):- “দেশের ছয় রাজ্যের ৫০০ গ্রামীণ উদ্যোগ কেন্দ্রীয় সরকারের গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রক-এর ‘আজীবীকা মিশন’-এর অধীন এক সাব স্কীম ‘স্টার্ট-আপ ভিলেজ এন্টারপ্রেনারসিপ প্রোগ্রাম’ (এসভিইপি) কর্মসূচির আওতায় এখন মাস্ক তৈরি করছে,” বলে জানিয়েছেন মন্ত্রকের এসভিইপি ইডিআইআই বিভাগের প্রজেক্ট হেড ডঃ রাজেশ গুপ্ত।

আজ প্রচারমাধ্যমের সাথে কথা বলতে গিয়ে ডঃ রাজেশ গুপ্ত জানান, “কেন্দ্রীয় সরকারের গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের অধীন ‘স্টার্ট-আপ ভিলেজ এন্টারপ্রেনারসিপ প্রোগ্রাম’টা সার্বিকভাবে পরিচালনা করে ‘এন্টারপ্রেনারসিপ ডেভলপমেন্ট ইন্সটিটিউট অব ইণ্ডিয়া’ (ইডিআইআই)।
বর্তমান পরিস্থিতিতে ‘ইডিআইআই’-এর প্রত্যক্ষ পরামর্শে দেশের ছয়টা রাজ্য (পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খণ্ড, ওড়িশা, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ ও হরিয়ানা)-র ৫০০ গ্রামীণ উদ্যোগ প্রত্যেকে এই মুহুর্তে গড়ে দৈনিক ২,৫০০ মাস্ক উৎপাদন করছে।
‘এসভিইপি’-র আওতায় ৫০০ গ্রামীণ উদ্যোগ এখনও পর্যন্ত ৩ লাখ ৫০ হাজার মাস্ক তৈরি করে বিক্রি করেছে।
দেশের অন্য ৫ টা রাজ্যের সাথে তালে তাল মিলিয়ে পশ্চিমবঙ্গের দিনহাটা, পাথরপ্রতিমা এবং মানিকচক ব্লকের ৩৮ টা গ্রামীণ উদ্যোগ এখন এককভাবে দিনে ৬০০ মাস্ক তৈরি করে সরবরাহ করছে। এই হিসেবে এখনও পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গে ৪৯ হাজার মাস্ক তৈরি করে বিক্রি করা হয়েছে।”

গ্রামীণ উদ্যোগগুলোর এই ভূমিকায় সমাজের তৃণমূল স্তরে কাজ করা স্বাস্থ্যকর্মী, চিকিৎসকবৃন্দ, সরকারী কর্মী,পুলিশ, সাফাইকর্মী, সাংবাদিক, স্বেচ্ছাসেবীরা উপকৃত হয়েছেন।

স্থানীয় প্রশাসনিক ও স্বয়াত্বশাসিত সংস্থাগুলো মাস্ক তৈরীর প্রয়োজনীয় কাঁচামাল যেমন উদ্যোগপতিদের সরবরাহ করছে, তেমনই সব রকম গুণমান বজায় রেখে যাতে কাজ হয় সে দিকেও নজর রাখছে। উদ্যোগপতি ও প্রশাসনিক স্তরের নজরদারিতে মাস্কগুলো পরিচ্ছন্ন পরিবেশে তৈরি করা সম্ভব হচ্ছে।
এর ফলে একদিকে যেমন মাস্কের অপ্রতুলতার সংকট অনেকটা কাটানো সম্ভব হয়েছে, তেমনই অন্যদিকে ক্ষুদ্র গ্রামীণ উদ্যোগগুলো নিয়মিত কিছু রোজগারের সুযোগও তৈরি করতে পেরেছে।

প্রসঙ্গতঃ বলে রাখা ভালো, ‘নভেল কোরোনা ভাইরাস’ সম্পর্কিত রোগ ‘কোভিড ১৯’-এর পরিপ্রেক্ষিতে এই মুহূর্তে দেশে লকডাউন চলছে।
লকডাউন-এর অভিঘাতে নিয়মিত রোজগার বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দেশের প্রান্তিক উদ্যোগপতিরা দিশাহারা হয়ে পড়েছিলেন।
এই দূরাবস্থা কাটাতে এগিয়ে আসে কেন্দ্রীয় সরকারের গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের অধীন ‘ইডিআইআই’।
পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে ‘ইডিআইআই’ দেশের গ্রামীণ উদ্যোগপতিদের অতি প্রয়োজনীয় ফেস মাস্ক তৈরীর উপদেশ দেয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

আমফানের টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে বিক্ষোভ ,শান্তিপুরের তিনটি পঞ্চায়েতের প্রধানের পদত্যাগের দাবিতে পোস্টার পরল

স্নেহাশীষ মুখার্জি, নদীয়া, ৪ জুন: আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেওয়া নিয়ে দুর্নীতি করছে পঞ্চায়েত মেম্বার, এই অভিযোগ তুলে বৃহস্পতিবার নদিয়ার শান্তিপুরের বেলঘড়িয়া ১...

মার সঙ্গে প্রতিবেশীদের ঝগড়া থামাতে গিয়ে শ্লীলতাহানীর শিকার মেয়ে

স্নেহাশীষ মুখার্জি, নদীয়া, ৪ জুন: ঝগড়া থামাতে গিয়ে শ্লীলতাহানীর শিকার হল মেয়ে। অভিযোগ তাঁকে শ্লীলতাহানি করেছে প্রতিবেশী যুবকরা। এই ঘটনায় ৬ জনের...

গ্ৰাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান করোনা-য় আক্রান্ত

অভিজিৎ হাজরা, হাওড়া : হাওড়া জেলার আমতা ২ নং ব্লকের জয়পুর থানার খালনা গ্ৰামপঞ্চায়েতের উপপ্রধান করোনা-য় আক্রান্ত।উপপ্রধানের পরিবার...

মে মাসে শুধু কোলকাতা থেকে ১১০ টন লিচু ও ৬০ টন মাছের ডিমপোনা পরিবহন করেছে স্পাইসজেট

হীরক মুখোপাধ্যায় (৪ জুন '২০):- এই বছর মে মাসে দমদম বিমানবন্দর থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ১১০ টন লিচু ও ৬০ টন মাছের...