05, Jun-2020 || 12:49 pm
Home কলকাতা ভিডিও কনফারেন্সিং ও টেলি মেডিসিন-এর সহায়তায় সুস্থ হচ্ছে বারাসাতের এক কুকুরছানা

ভিডিও কনফারেন্সিং ও টেলি মেডিসিন-এর সহায়তায় সুস্থ হচ্ছে বারাসাতের এক কুকুরছানা

হীরক মুখোপাধ্যায় (১০ মে ‘২০):- শুনতে অবাক লাগলেও এটাই কঠোর বাস্তব যে, ‘কোরোনা’ আবহে ভিডিও কনফারেন্সিং ও অত্যাধুনিক টেলি মেডিসিন-এর সহযোগিতায় ধীরে ধীরে সুস্থ হচ্ছে পথের এক কুকুরছানা।

উত্তর ২৪ পরগনার সদর শহর বারাসাতের তিন পশুপ্রেমী নীলাঞ্জনা রায়, প্রিয়াঙ্কা দাস এবং সৌমেন্দু সাউ-এর উদ্যোগে ও ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বেশ কিছুদিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করে আপাত সুস্থ হচ্ছে চারমাসের কুকুরছানা ‘লালু’।

‘নভেল কোরোনা ভাইরাস’ সম্পর্কিত রোগ ‘কোভিড ১৯’ জনিত কারণে বর্তমানে দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। এই সময় ‘কোরোনা’ আতঙ্কের পাশাপাশি সমগ্র দেশের সাথে পশ্চিমবঙ্গ থেকেও ‘পশু পীড়ন’-এর যে জীবন্ত ছবি বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে ঘুরে বেড়াচ্ছে তা যথেষ্টই পীড়াদায়ক।
কিছু কিছু ক্ষেত্রে এমন অনেক অমানবিক ঘটনার সাক্ষী থাকতে হচ্ছে যা ‘মানুষ’ হিসেবে সহ্য করাটাও যথেষ্ট লজ্জা বা গ্লানির বিষয়।
অথচ বারাসাতের এই ঘটনা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে সব মানুষই অমানুষ নয়।

ঘটনার বিস্তারিত তথ্য দিতে গিয়ে বারাসাত পশুপ্রেমী মহলের এক পরিচিত মুখ সৌমেন্দু সাউ জানান, “আমি যে এলাকায় থাকি সেখানে চার মাস আগে ‘কালি’ নামের এক কুকুরের ‘লালু’ এবং ‘কালু’ নামের দুটো বাচ্চা হয়।
গত ২৪ এপ্রিল রাতে খাবার দেওয়ার সময় ‘লালু’-র কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। পরেরদিন সকালে এলাকারই এক মহল্লা থেকে ওকে অসুস্থ অবস্থায় পাওয়া যায়।
যখন ‘লালু’-কে পাওয়া যায়, সেই সময় ওর শরীরে ছিলনা উঠে দাঁড়াবার বিন্দুমাত্র ক্ষমতা, মুখ দিয়ে অহরহ লালা পড়ছিল। এক ঝলক দেখে মনে হচ্ছিল ‘জলাতঙ্ক’ হয়ে যায়নি তো !

লকডাউনের সময় বেশিরভাগ পশু চিকিৎসকই এলাকার বাইরে থাকায় মনে মনে খুব অসহায় বোধ করছিলাম।
এই সময় ২৫ এপ্রিল যোগাযোগ করি শিক্ষয়িত্রী প্রিয়াঙ্কা দাস-এর সাথে। পশুপ্রেমী রূপে আমাদের এলাকায় অনেকেই ওঁনাকে চেনেন।

২৬ এপ্রিল প্রিয়াঙ্কা দাস-এর উদ্যোগে একদিকে যেমন আমার এলাকার ছটা কুকুর (কালি, কালু, লেবু, শিয়াল, টাইগার, টেঁপি)-কে জলাতঙ্কের প্রতিষেধক ইঞ্জেকশন দেওয়া হয়, তেমনই অন্যদিকে ‘লালু’-র চিকিৎসা পর্বও শুরু হয়।

লকডাউনের আবহে প্রথমে চিকিৎসক পাওয়া না যাওয়ায় এক প্যারা ভেটেরিন্যারি কর্মী দীপ দে ‘লালু’-র চিকিৎসার ভার নিয়েছিল।
চিকিৎসার প্রথমদিকে ‘লালু’-র মুখ দিয়ে যেমন লালা বেরচ্ছিল তেমনই মাথা তুলতে বা দাঁড়াতেও পারছিলনা। কদিন বাদে বোঝা গেল ওর মুখের ভেতরে এক ক্ষত রয়েছে আর ক্ষতস্থানে পোকাও হয়ে গেছে।

চিকিৎসা চলাকালীন ২৮ এপ্রিল ‘লালু’ আবার নিখোঁজ হয়ে যায়। যদিও পরের দিন বারাসাত হাটখোলায় অবস্থিত মহকুমা আরক্ষা আধিকারিক-এর কার্যালয়ের বিপরীত দিক থেকে ওকে আবার খুঁজে পাওয়া যায়।

যখন ‘লালু’-কে পাওয়া গেল তখন ও এতটাই কাহিল হয়ে পড়েছিল যে ওর দিকে তাকানো যাচ্ছিল না। প্যারা ভেটেরিন্যারি কর্মী তো আশাই ছেড়ে দিয়েছিল।

কিন্তু, পরের দিন অর্থাৎ ৩০ এপ্রিল সকাল বেলায় যখন দেখা যায় ‘লালু’ তখনো বেঁচে আছে, তখন প্রিয়াঙ্কা দাস সর্বশক্তি নিয়ে এগিয়ে আসেন। তিনিই যোগাযোগ করেন স্থানীয় আর এক পশুপ্রেমী পেশায় তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের কর্মী নীলাঞ্জনা রায়-এর সাথে। প্রিয়াঙ্কা ও নীলাঞ্জনা দুজনেই ‘পশুপতি এনিম্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটি’-র সদস্য।

পরে ওঁরা দুজনেই আগ্রহের সাথে যোগাযোগ করেন ‘সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্প’-র পশু চিকিৎসক শঙ্করশেখর বিশ্বাস ও ‘বারাসাত পশু হাসপাতাল’-এর প্রাক্তন চিকিৎসক গোপাল সামন্ত-র সাথে।

‘কোরোনা’ আতঙ্ক এবং ‘লকডাউন’-এর ফলে ‘লালু’-র সামনে এই দুই চিকিৎসক হাজির হতে না পারলেও ভিডিও কনফারেন্সিং-এর মাধ্যমে চিকিৎসা চালাতে শুরু করেন।

এই পর্যায়ে দুই চিকিৎসক দূর থেকে প্রথমদিকে বুঝে উঠতে পারছিলেন না যে এটা ‘জলাতঙ্ক’ না ‘ডিসটেম্পার’, নাকি মারামারি করার ফলে শিরদাঁড়ায় আঘাত জনিত কোনো সমস্যা!
যদিও পরবর্তী সময়ে দুই চিকিৎসকের চিকিৎসায় সাড়া দিয়ে কিছুটা সুস্থ হয়েছে লালু।”

সমাজের একটা বড়ো অংশ যখন আজও বাড়ির সামনে কোনো পথ-কুকুরকে খেতে দিতে গেলে বিরক্ত হন, অযাচিতভাবে পশুপ্রেমীদের জন্মরহস্য তুলে গাল পাড়তেও দ্বিধাবোধ করেননা। ঠিক তখন বারাসাতের এই তিন জন যেন অক্ষরে অক্ষরে আবার বুঝিয়ে দিলেন ডঃ ভূপেন হাজারিকা-র বহুশ্রুত ‘…মানব যদি না হয় মানব, দানব কখনো হয় না মানব..’ গানের অন্তর্নিহিত অর্থ।

এর পরেও কোটি টাকার প্রশ্ন থেকে যাবে, বারাসাতের এই ঘটনা কী আদৌ মানুষ রূপের আমানুষদের হুঁশ ফেরাতে পারবে ?

তবে আশার আলো এটাই যে ‘লালু’-কে সুস্থ করার জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা দাস-এর মা সহ এলাকার অনেকেই।
এভাবেই যদি প্রত্যেকে তাঁর কর্মব্যস্ত জীবন থেকে কিছুটা সময় তাঁর এলাকার পশুপাখিদের মঙ্গলের জন্য ব্যয় করতে পারেন, তাহলেই রক্ষাপাবে এই মুহুর্তের বহুল আলোচিত বাস্তুতন্ত্র।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

আমফানের টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে বিক্ষোভ ,শান্তিপুরের তিনটি পঞ্চায়েতের প্রধানের পদত্যাগের দাবিতে পোস্টার পরল

স্নেহাশীষ মুখার্জি, নদীয়া, ৪ জুন: আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেওয়া নিয়ে দুর্নীতি করছে পঞ্চায়েত মেম্বার, এই অভিযোগ তুলে বৃহস্পতিবার নদিয়ার শান্তিপুরের বেলঘড়িয়া ১...

মার সঙ্গে প্রতিবেশীদের ঝগড়া থামাতে গিয়ে শ্লীলতাহানীর শিকার মেয়ে

স্নেহাশীষ মুখার্জি, নদীয়া, ৪ জুন: ঝগড়া থামাতে গিয়ে শ্লীলতাহানীর শিকার হল মেয়ে। অভিযোগ তাঁকে শ্লীলতাহানি করেছে প্রতিবেশী যুবকরা। এই ঘটনায় ৬ জনের...

গ্ৰাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান করোনা-য় আক্রান্ত

অভিজিৎ হাজরা, হাওড়া : হাওড়া জেলার আমতা ২ নং ব্লকের জয়পুর থানার খালনা গ্ৰামপঞ্চায়েতের উপপ্রধান করোনা-য় আক্রান্ত।উপপ্রধানের পরিবার...

মে মাসে শুধু কোলকাতা থেকে ১১০ টন লিচু ও ৬০ টন মাছের ডিমপোনা পরিবহন করেছে স্পাইসজেট

হীরক মুখোপাধ্যায় (৪ জুন '২০):- এই বছর মে মাসে দমদম বিমানবন্দর থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ১১০ টন লিচু ও ৬০ টন মাছের...