Categories: জেলা

বর্তমান সমাজে ব্রাহ্মণরা ব্রহ্মত্ব রক্ষা করতে কি সক্ষম

অর্পিতা সিনহা, বাঁকুড়া (৭ নভেম্বর): হিন্দু সম্প্রদায়ের চতুর্থ বর্ণের প্রথম বর্ণ ব্রাহ্মণ সম্প্রদায়। গীতা তে শ্রীকৃষ্ণ বলেছেন ব্রহ্মা প্রথমে মনুষ্য গণের সৃষ্টি করেছিলেন, পরে কর্মানুসারে সকলে নানা বর্ণত্ব প্রাপ্ত হয় কেউ ব্রাহ্মণ, কেউ ক্ষত্রিয়,কেউ বৈশ্য, এবং কেউ শুদ্র। যিনি ক্ষমবান, যোগী,সংযত চিত্ত,অনলস,স্পৃহাশূন্য,সত্যবাদী, জিতেন্দ্রিয় ও শাস্ত্রজ্ঞ তিনি ব্রাহ্মণ অর্থাৎ গুণ ও কর্ম অনুসারে ব্রাহ্মণের সৃষ্টি,জন্মানুসারে নয়।

প্রাচীন ও মধ্যযুগের সমাজে ব্রাহ্মণরা সকল বর্ণ বা সম্প্রদায়ের থেকে নিজেদেরকে আলাদা করে রাখতেন। তাঁরা মনে করতেন তাঁরা সমাজের সর্বময় কর্তা। এই সমাজের আদর্শ রক্ষা করা তাদের কাজ।এই যুগে ব্রাহ্মণরা ছিলেন গুরু এবং সকলের কাছে শ্রদ্ধেয় প্রণম্য ব্যক্তি। তারা নিম্ন সম্প্রদায়ের হাতে জলস্পর্শ করতেন না।পূজার্চনা সহ হিন্দুদের যে কোন ধর্মীয় অনুষ্ঠানে পৌরহিত্য করা ছিল ব্রাহ্মণের একটি সাধারণ পেশা। আবার শিক্ষা-দীক্ষা,ব্যাবসা-বানিজ্য,রাজনীতি,চাকরি ইত্যাদি ক্ষেত্রেও তারা অন্যদের থেকে অগ্রগণ্য ছিলেন। ব্রাহ্মণরা ছিলেন সাত্ত্বিক তারা সমাজের পবিত্রতম প্রতিমুর্তি হিসাবে গণ্য হতেন এবং তাঁদেরকে দেবতা হিসেবে পূজা করা হতো।

তৎকালীন সময়ে ব্রাহ্মণেরা অভিমান ও অহংকার করে বলতেন তাঁরাই শ্রেষ্ঠ জাতি কিন্তু প্রকৃতপক্ষে জাত্যাভিমান ব্রাহ্মণদের ধর্ম নয়। বুদ্ধমতে যে কোন ব্যক্তি সৎভাবে কৃচ্ছসাধন করলে ব্রাহ্মণত্বের পর্যায়ে উন্নীত হতে পারে। সেই যুগে ব্রাহ্মণরা নিজেকে শ্রেষ্ঠ হিসেবে প্রতিস্থাপিত করতেন এবং সমাজের নিচুতলার মানুষ কে অবদমিত করে রাখতেন। কিন্তু তাঁরা ত্রিসন্ধ্যা জপ আহ্নিক করে ব্রাহ্মণত্বের আদর্শ বজায় রাখার সফলতা লাভ করতে পেরেছিলেন। এরপর আস্তে আস্তে সমাজের উন্নতির সাথে সাথে সবকিছু বদলাতে থাকে।

বর্তমানে জীবনধারা অনেক পাল্টে গেছে,এখন কেউ যদি ভাবেন সত্যবাদী হয়ে বা সাত্ত্বিক ব্রাহ্মণ হয়ে পূজা-অর্চনা করে জীবন ধারণ করবেন তাহলে সমাজে তাঁর ঠাঁই হবে না।তাই পরিস্থিতির চাপে ব্রাহ্মণ যখন আপন কর্তব্য ত্যাগ করেছে তখন শুধুমাত্র পরলোকের ভয় দেখিয়ে সমাজের উচ্চতম স্থানে নিজেদের আসনরক্ষা করতে পারা অত্যন্ত কঠিন ব্যাপার। আধুনিক কালে কিছু ব্রাহ্মণ বিনামূল্যে সম্মান আদায় এর বৃত্তি অবলম্বন করেছেন শুধু তাই নয় আগে ব্রাহ্মণেরা সমাজের উচ্চ কর্মে নিযুক্ত ছিলেন সেই কর্মে বর্তমানে তাদের শৈথিল্যতা দেখা যাচ্ছে।বতর্মানে নিজের অস্তিত্ব রক্ষার তাগিদে আমরা প্রতিনিয়ত প্রতিযোগিতায় রত। নিজের পাশের লোকও এই লড়াই থেকে বাদ যায় না সেখানে কর্তব্যের আদর্শে নিজেকে বিশুদ্ধ রাখা সত্যিই কষ্টসাধ্য। এখন সব কিছুই স্বার্থ সমন্বিত। স্বার্থের ঊর্ধ্বে উঠে ধর্মের মাধ্যমে কর্তব্য স্থাপন করতে গেলে আধ্যাত্মিকতা লাভ হয় ঠিকই কিন্তু তাতে ব্রাহ্মণের জীবন চলবে না।তাই বলে বর্তমানে ব্রাহ্মণরা ব্রহ্মত্ব রক্ষা করতে অক্ষম একথা বললে ভুল বলা হবে সমাজের ধারাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে মানুষকে পরিবর্তনশীল হতেই হয়।

Share

Recent Posts

ভাঙা বাড়িতে পরিত্যক্ত অবস্থায় ,উদ্ধার এক সদ্যজাত শিশু

সৌগত মন্ডল(বীরভূম): শিশুটাকে সালবাদরা সুলাঙ্গা ভোট ভুটকুপাড়া পাওয়া গেছে আজ সকাল ৬ টায়। সিভিক পুলিশরা খবর দেয় আশা কর্মী কে,… Read More

12 hours ago

লকডাউনে অসহায় ব্যক্তিদের পাশে কাষ্ঠগড়া স্পোর্টস এন্ড কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা

সৌগত মন্ডল (বীরভূম ): সারা দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। রাস্তা ঘাট থেকে শুরু করে যানবাহন দোকান সমস্ত কিছুই বন্ধ । একশ্রেণীর… Read More

1 day ago

নদিয়ায় কোয়ারেন্টাইনে থাকা যুবকের গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

স্নেহাশীষ মুখার্জি, নদীয়া(২৯ মার্চ) : করোনা আবহে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা এক যুবকের গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হওয়ার ঘটনায় চাঞ্চল্য নদিয়ার… Read More

2 days ago

উলুবেড়িয়া উপ- সংশোধনাগারে বন্দীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ বন্ধ

অভিজিৎ হাজরা, উলুবেড়িয়া: উলুবেড়িয়া উপ-সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষ করোনা ভাইরাস এর সতর্কতা অবলম্বনে বন্দীদের সঙ্গে বাড়ির লোকেদের দেখা করা নিষিদ্ধ করেছে। দেশে… Read More

2 days ago

এক সামাজিক মাধ্যম দাবী করছে বাজারে দেদার বিক্রি হচ্ছে ব্যবহৃত মাস্ক

হীরক মুখোপাধ্যায় (২২ মার্চ '২০):- যাঁরা এই মুহুর্তে 'কোরোনা ভাইরাস'-এর সংক্রমণ ঠেকাতে একবারের ব্যবহার উপযোগী সার্জিক্যাল মাস্ক বাজারের অনামী দোকান… Read More

1 week ago

বোমা বাঁধতে গিয়ে বোমের আঘাতে জখম এক

স্নেহাশীষ মুখার্জি, নদীয়া(২১ মার্চ ):বোমা বাঁধতে গিয়ে বোমের আঘাতে গুরুতর জখম এক তৃণমূল কর্মী। আশঙ্কাজনক অবস্থায় কলকাতা নীলরতন হাসপাতালে ভর্তি।… Read More

1 week ago