Categories: জেলা

বংশীহারীকে নির্মল ব্লক ঘোষনা করার উদ্যোগ

পল মিত্র, দক্ষিন দিনাজপুরঃ ১১ মার্চ দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বংশীহারী ব্লককে নির্মল ব্লক ঘোষণা করছে জেলা প্রশাসন। এদিকে বংশীহারী ব্লকের মহাবারি গ্রাম পঞ্চায়েতের রহিমপুর, খিদিরপুর এলাকায় বেশির ভাগ বাড়িতেই এখনও নেই কোন শৌচালয়। ফলে মাঠ ঘাটই একমাত্র ভরসা শৌচ কর্মের জন্য। শৌচালয়ের জন্য বছর দেড়েক আগে টাকা দিয়েও এখনও মেলেনি। এদিকে ২০১৬ সালের ২২ ডিসেম্বর মহাবারি গ্রাম পঞ্চায়েতকে নির্মল পঞ্চায়েত হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে। প্রত্যেক পরিবারকে দিয়ে দেওয়া হয়েছে নির্মল পরিবার কার্ডও। একশ শতাংশ বাড়িতে শৌচালয় না থাকলেও ঘোষণা করা হচ্ছে নির্মল ব্লকের। এতেই ক্ষোভ দেখা দিয়েছে এলাকাবাসীর মধ্যে। যদিও বংশীহারী পঞ্চায়েত সমিতির পক্ষ থেকে এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছেজানা গিয়েছে, মহাবারি গ্রাম পঞ্চায়েতের রহিমপুর, খিদিরপুর এলাকায় এক হাজার পরিবার রয়েছে। যার মধ্যে বেশির ভাগ পরিবারের বাড়িতে নেই কোন শৌচালয়। ২০১৬ সালেই সরকারি সহায়তায় শৌচালয় পেতে টাকা দেয় গ্রামবাসীরা। ৯০০টাকা করে গ্রামবাসীরা পঞ্চায়েত সদস্যদের দেয়। এদিকে ২০১৬ সালে ২২ ডিসেম্বর মহাবারি গ্রাম পঞ্চায়েতকে নির্মল পঞ্চায়েত ঘোষণা করা হয়। এদিকে গত কয়েক দিন থেকেই জেলার এক একটি করে ব্লককে নির্মল ব্লক ঘোষণা করা হচ্ছে। আগামী ১১ মার্চ বংশীহারী ব্লককে নির্মল ঘোষণা করা হবে। এদিকে এলাকায় দুটি গ্রামে এখন শতাধিক বাড়িতে নেই শৌচালয়। এর পরেও কি করে নির্মল ব্লক ঘোষণা করছে প্রশাসন তা নিয়ে ধন্দে এলাকাবাসীরা
এবিষয়ে স্থানীয় গ্রামবাসী কল্পনা, শিতেস সরকার জানান, তাদের গ্রামের বেশির ভাগ বাড়িতেই নেই শৌচালয়। তাই শৌচ কর্ম করতে একমাত্র ভরসা মাঠ ঘাট। এদিকে শৌচালয় তৈরির জন্য তারা টাকা দিয়েছেন এবং ২০১৬ সালে নির্মল পঞ্চায়েত ঘোষণা করার জন্য পঞ্চায়েত সদস্যরা কার্ড দেয়। কিন্তু এখন পর্যন্ত তারা শৌচালয় পাননি। মাঠে ঘাটে শৌচ কর্ম করতে গিয়ে নানান সময় অপরিস্থিতি কর অবস্থায় পড়তে হয় মহিলাদের। গ্রামে সবার বাড়িতে তারা শৌচালয়ের দাবি জানিয়েছেন।

এবিষয়ে স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্যা দীপা সরকার জানান, শৌচালয় নেই সেই বিষয়টি বিডিও থেকে অন্যান্য আধিকারিকদের বারংবার জানিয়েছেন তারা। তাতেও কোন কাজ হয়নি। এদিকে নির্মল পঞ্চায়েত ঘোষণা করার জন্য তাদের উপর চাপ দেওয়া হত। তাই সবার বাড়িতে শৌচালয় আছে সেই রিপোর্ট জমা করতে বস্তা দিয়ে ঘিরে শৌচালয় দেখিয়েছেন। তাদের কিছু করার ছিল না। তাদের উপর যে ভাবে চাপ দেওয়া হয়েছে তাতে এমন করতে বাধ্য হয়েছে।
অন্য দিকে বংশীহারী পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বাবলু মন্ডল এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি জানান গ্রামে বেশির ভাগ বাড়িতেই শৌচালয় আছে। আর যে দু একজন করেনি তাদের বলা হয়েছে এবং পুরো বিষয়টি বোঝানো হয়েছে। এরপরেও যারা এমনটা বলছে তারা সরকারি সাহায্য নেওয়া বা প্রকল্প পেতে এমনটা বলছে বলে অভিযোগ করেছেন বংশীহারী পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বাবলু মণ্ডল।

Share

Recent Posts

প্রেমিকাকে মোবাইল ফোনে ডেকে মারধর প্রেমিকের

শুভঙ্কর অধিকারী, বসিরহাট(১৭ অক্টোবর): বসিরহাট মহকুমার হাসনাবাদ থানার পূর্ব খেজুরবাড়িয়া গ্রামের ঘটনা। হিঙ্গলগঞ্জ মহা বিদ্যালয়ের এর প্রথম বর্ষের ছাত্রী বয়স… Read More

18 mins ago

ত্রিকোণ প্রেমের জেরে খুন নাকি এর পেছনে রয়েছে অন্য কোন কারণ তদন্তে পুলিশ

শুভঙ্কর অধিকারী, নিমতা(১৭ অক্টোবর): নবমীর শেষ রাতে নিমতার বঙ্কিম মোড়ে গাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছিল দমদমের বাসিন্দা দেবাঞ্জন দাসের দেহ। ওই… Read More

21 mins ago

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পুলিশে আস্থা নেই খোদ রাজ্যপালের তাই পাঁচজন কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা কর্মী পাঠাচ্ছে কেন্দ্র

হীরক মুখোপাধ্যায় (১৭ অক্টোবর '১৯):-পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পুলিশে আস্থা নেই খোদ রাজ্যপালের তাই রাজ্যপালের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে বিশেষ শিক্ষিত পাঁচজন… Read More

24 mins ago

বর্তমান যুগের সাথে তাল মিলিয়ে শ্রীমদ্ভগবদগীতার বাস্তবতা (দ্বিতীয় পর্ব)

অর্পিতা সিনহা,বাঁকুড়া(১৫অক্টোবর): তৃতীয় অধ্যায়,কর্মযোগ : অর্জুন বললেন হে পরমেশ্বর কর্ম অপেক্ষা জ্ঞানই যদি শ্রেষ্ঠ হয় তাহলে মানুষ কেন এত হিংসা… Read More

2 hours ago

জাতীয় পতাকা উল্টোভাবে উত্তোলন করে রাজ্য সরকারের মুখ পোড়াল ডিরেক্টরেট অব কমার্সিয়াল ট্যাক্সেস

হীরক মুখোপাধ্যায় (১৬ অক্টোবর '১৯):- আজ সকালে ভারতের জাতীয় পতাকা উল্টোভাবে উত্তোলন করে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে সীমাহীন লজ্জার সামনে ফেলল সল্টলেকে… Read More

1 day ago

বর্তমানে যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে শ্রীমদ্ভগবদগীতার বাস্তবতা

অর্পিতা সিনহা,বাঁকুড়া(১৫অক্টোবর ): শ্রীমদ্ভগবদগীতা হিন্দুদের প্রাচীন ধর্মগ্রন্থ। গীতা ৭০০টি শ্লোক ও১৮ টি অধ্যায় নিয়ে রচিত। শ্রীমদ্ভগবদগীতা ভগবান শ্রীকৃষ্ণের মুখ নিঃসৃত… Read More

1 day ago