Categories: সু-স্বাস্থ্য

দেশে দিন দিন ভয়াবহ আকার ধারণ করছে কিডনির সমস্যা : ডাঃ শর্মিলা থুকরাল

হীরক মুখোপাধ্যায় (২০ অগস্ট ‘১৯):– “সমগ্র বিশ্বের সাথে সাথে ভারতেও দিন দিন ভয়াবহ আকার ধারণ করছে মূত্রাশয়(কিডনি)-এর সমস্যা। এই মুহূর্তে আমাদের দেশে অবস্থা এমন জায়গায় চলে গেছে যে প্রতিদিন ১০ মিনিট অন্তর অন্তর মূত্রাশয় প্রতিস্থাপনের জন্য একটা করে নতুন রোগীর নাম নথিবদ্ধ হচ্ছে, এর পাশাপাশি সময় মতো মূত্রাশয়(কিডনি) না পাওয়ার কারণে প্রতিদিন ১৫ জন রোগী মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ছেন,” জানালেন ‘নারায়ণা সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল, হাওড়া’-র কনসালট্যান্ট নেফ্রোলজি ডাঃ শর্মিলা থুকরাল।

গত ৩ ও ২৮ জুলাই ‘নারায়ণা সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল, হাওড়া’ সাফল্যের সঙ্গে দুই রোগীর দেহে মূত্রাশয় প্রতিস্থাপন(কিডনি ট্রান্সপ্ল্যানটেশন) করেছে। তারই খবর জানাতে এসে ডাঃ থুকরাল এই কথা জানান।

ডাঃ শর্মিলা থুকরাল-এর পাশে বসে হসপিটালের অপর কনসালট্যান্ট নেফ্রোলজি ডাঃ বিস্ময় কুমার জানান, “আমাদের দেশের বেশিরভাগ মানুষ অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে না থাকার জন্য তাঁরা সময় মতো নিজেদের শরীরের সামান্য পরীক্ষাগুলোও করাননা। ফলতঃ মূত্রাশয় জনিত রোগে আক্রান্ত রোগীরা যখন আমাদের কাছে আসেন তখন অনেকটাই দেরী হয়ে যায়। অবশ্য সবসময় ওঁনাদের দোষারোপও করা যায় না। ওঁনাদের শোনানো হয়, ক্রিয়েটিনিন ঠিক থাকা মানে মূত্রাশয় ঠিক আছে। কিন্তু, প্রকৃত সত্য হলো রোগটা ধরে যাওয়ার অনেকদিন পর ক্রিয়েটিনিন পরীক্ষায় ধরা পরে। তাই আমাদের প্রত্যেকের বছরে অন্ততঃ ছয় মাস অন্তর যেকোনো রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের কাছে গিয়ে নিজেদের দেখিয়ে নেওয়া উচিত।
বিশেষতঃ যাঁদের সুগার, ডায়াবেটিস, প্রেসার আছে তাঁদের তো নিয়মিত ভাবেই চিকিৎসকের কাছে যাওয়া দরকার।
এছাড়া যাঁদের কিছু জন্মগত সমস্যা, অটো ইমিউন ডিজিজ, মূত্রাশয় জনিত বংশগত রোগ, মূত্রাশয়ে পাথর বা অযথা ব্যথা কমানোর ওষুধ খাওয়ার বাতিক আছে তাঁদেরও নিয়মিত চিকিৎসকের কাছে গিয়ে নিজেকে দেখিয়ে নেওয়া দরকার। কেননা, বিভিন্ন পরিসংখ্যান বলছে এই জাতীয় সমস্যায় জর্জরিত রোগীরাই পরবর্তী সময়ে মূত্রাশয়ের সমস্যায় ভোগেন।”

সাংবাদিক সম্মেলনে এঁদের সাথে উপস্থিত ছিলেন হসপিটালের কনসালট্যান্ট ইউরোলজি ডাঃ অভয় কুমার ও হসপিটালের ফেসিলিটি ডিরেক্টর শুভাশিস ভট্টাচার্য।

‘নারায়ণা সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল, হাওড়া’-র তরফ থেকে চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, “আজকের দিনে মূত্রাশয়ে সমস্যার জন্য বয়স কোনো বিষয় বলে গ্রাহ্য হচ্ছে না। যেকোনো বয়সেই এই রোগ হচ্ছে। এই রোগে আক্রান্ত হয়ে ঘরের জমানো অর্থ ও জীবন বিসর্জনের ইচ্ছা না থাকলে, প্রত্যেককে দেখতে হবে তাঁরা যখন প্রস্রাব করছেন তখন অধিক সময় গ্যাঁজা দেখা যাচ্ছে কিনা। এইরকম হলে বুঝতে হবে শরীর থেকে প্রোটিন বেড়িয়ে যাচ্ছে। এই রকম কোনো বিষয় নজরে এলেই আগে যোগ্য চিকিৎসকের স্মরণাপন্ন হওয়াটাই বাঞ্ছনীয়। প্রাথমিক সময়ে শরীর থেকে সমস্যাটাকে সরিয়ে দিতে পারলেই অর্থ বা জীবন নাশকারী এই রোগকে চিরতরে পরাস্ত করা যেতে পারে।”

Share

Recent Posts

শিব ঠাকুরের আপন দেশে ,আইন কানুন সর্বনেশে ….. বারাসাত হাসপাতালে চিকিৎসকের ব্যবসার মাশুল গুনছেন রোগীর পরিবার ॥*

শুভঙ্কর অধিকারী,বারাসত(২০ সেপ্টেম্বর):  রোগী বধ্য । ব্যবসা মূলকথা । হাসপাতালে রুগী না দেখে ডিউটি আওয়ার্সে চিকিৎসকের প্রাইভেট চেম্বারে চিকিৎসা চলছে ।… Read More

1 hour ago

ব্যর্থ কোলকাতা পুলিশ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে উদ্ধার করতে ঘটনাস্থলে আসতে হল রাজ্যপালকে

হীরক মুখোপাধ্যায় (১৯ সেপ্টেম্বর '১৯):- আন্দোলনের নামে আজ দুপুর থেকে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে দাঁড়িয়ে পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষাঙ্গনের মুখ কালিমালিপ্ত করল বাম… Read More

19 hours ago

খড়গপুরে পিস্তল ও মোবাইল সহ আটক ১

নিজস্ব প্রতিনিধি,খড়গপুর(১৯ সেপ্টেম্বর):-পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার খড়গপুর শহরের পর পর তিন বার গুলি চলার ঘটনা ঘটলো।অবশ্য তার রেশ কাটতে না কাটতেই… Read More

1 day ago

খড়গপুর টাউন থানায় বিজেপির ডেপুটেশন

নিজস্ব প্রতিনিধি, খড়গপুর(১৯ সেপ্টেম্বর):-পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার খড়গপুর শহরে বৃহস্পতিবার সকাল প্রায় সাড়ে এগারোটা নাগাদ শান্তি পূর্ণ ভাবে খড়গপুর টাউন থানার… Read More

1 day ago

বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার

ব্রজেশ্বর রায়, দিনহাটা(১৮ সেপ্টেম্বর) : গোপন সূত্রে খবর পেয়ে দিনহাটা ২ নং ব্লকের পূ্র্ব শিকারপুর গ্রামে বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ এক… Read More

2 days ago

জোরপাকুড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ে “মাল্টি জিম”আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন

ব্রজেশ্বর রায়,দিনহাটা(১৮ সেপ্টেম্বর) : বুধবার দিনহাটা -১ নং ব্লকের জোরপাকুড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ে "মাল্টি জিম"আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হলো। উদ্বোধন করেন দিনহাটা… Read More

2 days ago