থ্যালাসেমিয়া রোগ সম্পর্কে জনগণকে সচেতন করল এপোলো গ্লেনিগল্স হসপিটাল কোলকাতা

কলকাতা সু-স্বাস্থ্য

 

হীরক মুখোপাধ্যায় (১০ মে ‘১৯):- বর্তমান বিশ্বে ভারত-কে ‘থ্যালাসেমিয়া-র রাজধানী’ বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। এই মুহুর্তে ভারতে ৪০ মিলিয়ন থ্যালাসেমিয়ার কেরিয়ার রয়েছেন, এর উপর প্রতি বছর ভারতে ১০ হাজার থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশু জন্মগ্রহণ করছে।
প্রতি বছর থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশু ও অন্যান্যদের চিকিৎসার জন্য ২ মিলিয়ন ইউনিট প্যাকড রেড ব্লাড সেল প্রয়োজন হয়, আর এই ব্যয়বহুল চিকিৎসার জন্য প্রতি বছর ১৫ হাজার কোটি টাকা খরচ হচ্ছে জনগণের ও সরকারের।

এই রকম এক সমস্যাজনক পরিস্থিতিতে বহির্বিশ্বের সাথে সঙ্গতি রেখে গত ৮ মে ভারতে পালিত হয়েছে ‘বিশ্ব থ্যালাসেমিয়া দিবস’।
তারই অঙ্গ রূপে আজ ‘এপোলো গ্লেনিগল্স হসপিটাল কোলকাতা’ পালন করল থ্যালাসেমিয়া সচেতনতা মূলক কার্যক্রম ‘হাউ টু ট্যাকেল থ্যালাসেমিয়া এণ্ড লিড আ নরম্যাল লাইফ’।

৩০ জন থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশু ও বয়স্ক ব্যক্তিদের নিয়ে সাজানো এই অনুষ্ঠানে হাসপাতালের চিকিৎসকেরা বারবারই বোঝালেন,- ‘জিন ঘটিত এই রোগের সাথে লড়াইয়ে মানবসমাজকে জিততে গেলে আগে এই রোগ সংক্রান্ত সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে।
যদি বিবাহযোগ্য বয়স্ক নরনারী একটু সচেতন হয়, তাহলে অনায়াসেই এই ভয়াবহ রোগের প্রাদুর্ভাব ঠেকানো যেতে পারে। অন্যথায় হাজার সচেতন হয়েও কোনো লাভ হবেনা।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *