Categories: জেলা

ক্যান্সার নামক মারণ রোগ থেকে মুক্তির কি কোনো উপায় নেই?:

অর্পিতা সিনহা, বাঁকুড়া(২৮জানুয়ারি,২০২০): বর্তমানে ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়া মানুষের সংখ্যা অতি দ্রুত হারে বেড়েই চলেছে। ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ক্যান্সার প্রিভেনশন অ্যান্ড রিসার্চের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ভারতে প্রায় ২৫ লক্ষ মানুষ ক্যান্সারে আক্রান্ত এবং প্রতিবছর আরো প্রায় সাত লক্ষ করে মানুষ এই মারণ রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। প্রাথমিক অবস্থায় ক্যান্সার রোগ অনেক ক্ষেত্রেই ধরা না পড়ার কারণে শেষ পযর্ন্ত ভালো চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হয় না, আমরা হারিয়ে ফেলি আমাদের প্রিয়জনদের। শিশু থেকে বয়স্ক কেউই রেহাই পাচ্ছেনা এই মারণ রোগের কবল থেকে।

ক্যান্সার বা কর্কটরোগ হল অনিয়ন্ত্রিত কোষ বিভাজন। মানুষের শরীর অসংখ্য ছোট ছোট কোষের সমন্বয়ে গঠিত।এই কোষগুলি একটি নির্দিষ্ট সময় পরপর নষ্ট হয়ে যায়, সেখানে নিয়ন্ত্রিতভাবে আবার জন্ম নেয় নতুন কোষ।এই কোষগুলি যখন অনিয়ন্ত্রিতভাবে বাড়তে থাকে তখনই ত্বকের নিচে মাংসের দলা বা চাকা দেখা যায় একে টিউমার বলে।এই টিউমার গুলি বিভিন্ন রকমের হতে পারে। কিন্তু সাধারণত ম্যালিগন্যান্ট টিউমারকেই ক্যান্সার বলে।

ক্যান্সার নিয়ে প্রতিনিয়ত নানান পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে কিন্তু আজ পর্যন্ত ক্যান্সার এর কোনো সুনির্দিষ্ট কারণ খুঁজে পাননি গবেষকরা। আমাদের পরিবর্তিত জীবনধারা ক্যান্সারের প্রকোপ বৃদ্ধির কারণ বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন ।যেমন ছোটোবেলা থেকেই শিশুদের অতিরিক্ত উচ্চ ক্যালরিযুক্ত খাবার অর্থাৎ ফাস্টফুড খাবার প্রবণতা ভবিষ্যতে তাদের এই মারণ রোগের দিকে অগ্রসর করে দিচ্ছে। অন্যদিকে আবার খাদ্যে ফাইবার এর পরিমাণ বেশি থাকা যে প্রয়োজন সেটি শৈশবকাল থেকেই অনেক বাবা-মাই নজর দেন না।এছাড়াও পরিণত বয়সে ধূমপান, মদ্যপান,দোক্তা,মাংস ,অতিরিক্ত লবণ,চিনির সাথেও রয়েছে ক্যান্সারের যোগ। অন্যদিকে যারা শারীরিক পরিশ্রম কম করে তাদের মধ্যেও ক্যান্সারের প্রবণতা বেশি লক্ষ্য করা যায়। ক্যান্সারের সাথে জিনের সম্পর্ক রয়েছে বলেও প্রমাণ পাওয়া যায়। পরিবারের কারো যদি ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা অতীতে থাকে তাহলে অন্যদেরও এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকটাই বেড়ে যায়।পরিবেশ ও পেশাগত কারণেও ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনাও ঘটতে পারে। যারা রঙের কারখানা, রাবার বা গ্যাসের কাজে নিযুক্ত তারা এক বিশেষ রাসায়নিক পদার্থের সংস্পর্শে আসে যাতে তাদের শরীরে ও ক্যান্সারের ঝুঁকি বেড়ে যায় ।আবার সূর্যের রশ্মিতে বেশীক্ষণ থাকলেও ক্যান্সারের সম্ভাবনা থাকে।
মানুষের দেহের যেকোনো অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের ক্যান্সার হতে পারে। যেমন রক্তের ক্যানসার, চামড়ার ক্যান্সার,প্রোস্টেট গ্রন্থি,স্তন,জরায়ু,ফুসফুস,গলা,খাদ্যনালী,শ্বাসনালী ইত্যাদি জায়গায়।একেক ক্যান্সারের উপসর্গ একেক রকম হয়ে থাকে।তবে কিছু সাধারণ উপসর্গ রয়েছে যেগুলো দ্বারা মনে করা হয় মানুষটি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছে কিন্তু সাধারণ মানুষের কাছে এই উপসর্গগুলি তেমনভাবে ধরা পড়ে না।যেমন খুব ক্লান্ত বোধ হওয়া,ঠান্ডা লাগা,জ্বর সর্দি,কাশির সাথে অস্বাভাবিক রক্ত বের হওয়া,মলত্যাগে পরিবর্তন হওয়া অর্থাৎ ডাইরিয়া,কোষ্ঠকাঠিন্য কিম্বা মলের সাথে রক্ত বের হওয়া আবার কোন কারণ ছাড়া যদি কোনো আঘাতের জায়গায় ব্যথা হতে থাকে,ওষুধেও যদি সেই ব্যাথা না সারে তাহলে বুঝতে হবে জায়গাটি ক্যান্সারে আক্রান্ত।ক্যান্সার প্রাথমিক অবস্থায় ধরা না পড়লে এই রোগ সারানোর কোন উপায় থাকেনা। যদি প্রাথমিক অবস্থায় থাকে তাহলে ক্যান্সার আক্রান্ত কোষটিকে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে কেটে সরিয়ে ফেলা হয়। প্রাথমিক অবস্থা পেরিয়ে গেলে অস্ত্রোপচারের কোন উপায় থাকেনা তখন রেডিওথেরাপি অর্থাৎ শরীরের যে অংশে ক্যান্সারের জীবাণু রয়েছে সেগুলিতে তেজস্ক্রিয় রশ্মি প্রয়োগ করে ধ্বংস করার চেষ্টা করা হয়। আর সবশেষে হচ্ছে কেমোথেরাপি।ক্যান্সার নামক মারণ রোগের চিকিৎসার ক্ষেত্রে কেমোথেরাপি অত্যাবশ্যক। কেমোথেরাপি হল অ্যান্টি ক্যান্সার ড্রাগ যা স্যালাইনের সাথে সরাসরি রক্ত প্রবেশ করানো হয়। রক্তের সাথে এই ড্রাগ গুলি মিশে শরীরের যে স্থানে ক্যান্সারের জীবাণু রয়েছে সেগুলি কে নষ্ট করতে চেষ্টা করে।এই কেমোথেরাপির আবার উল্টো প্রতিক্রিয়াও রয়েছে।কেমো ড্রাগ চলার সময় রোগীকে প্রোটিন ও ভিটামিন সমৃদ্ধ খাদ্য গ্রহণ করতে হয় তা না হলে এই ড্রাগ সহ্য করার ক্ষমতা রোগীর থাকে না।তাছাড়া এই মারাত্মক ড্রাগ মানুষের শরীরের স্বাভাবিক রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতাও কমিয়ে দেয় যার ফলে সংক্রমণের সম্ভবনা খুব বেড়ে যায়।

ক্যান্সারে আক্রান্ত হলে মানুষ যে শুধু শারীরিক ভাবে ভেঙে পড়ে তাই নয় মানসিকভাবেও ভেঙে পড়ে। কারণ আজ পর্যন্ত এই রোগের কোন সঠিক ওষুধ আবিষ্কার করা সম্ভব হয়নি। আর বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর গড় আয়ু ৫ -১৫ বছর।তাই এই রোগে আক্রান্ত হলে মানুষ বাঁচার আশা হারিয়ে ফেলে এবং মনের দিক থেকে ভেঙে পড়ে।
ক্যান্সারের চিকিৎসা করাতে গেলে প্রচুর অর্থের প্রয়োজন হয়।তাই শেষ পযর্ন্ত এই চিকিৎসার খরচ চালানো অনেকের পক্ষে সম্ভব হয় না।ফলে অনেকেই মাঝপথে চিকিৎসা থামিয়ে দেন।কারণ ডাক্তার রবি কান্নান এর মত চিকিৎসক কজনেরই বা ভাগ্যে জোটে ?ধর্মনগর থেকে কাছাড় ক্যান্সার হাসপাতালে চিকিৎসা করতে এসেছিল এই রোগে আক্রান্ত এক রোগী,ডাক্তার কান্নান যখন তার চিকিৎসার পরবর্তী তারিখ টি লিখতে যাবেন তখন রোগী ও তার স্ত্রী তাঁকে হাত জোড় করে আর তারিখ লিখতে বারণ করেন। কারণ তারা জানায় আর চিকিৎসা করানোর টাকা তাদের নেই।এই কথাটি জেনে ডাক্তার রবি কান্নান বিনামূল্যে ওই রোগীর চিকিৎসা ব্যবস্থা করে দেন। যাতে তার পরিবার টি উপকৃত হয়। সুতরাং এই রোগের চিকিৎসা যদি বিনামূল্যে করা সম্ভব হয় তাহলে হয়তো আরো অনেক রোগী কে আমরা বাঁচাতে পারবো। কারণ বর্তমানে পরিবেশগত কারণে এই মারণ রোগে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা এত দ্রুত হারে বেড়ে চলছে যে আর কিছুদিনের মধ্যে প্রত্যেক ঘরেই হয়তো একজন করে ক্যান্সার রোগী পাওয়া যাবে।

Share

Recent Posts

সৌরভ গাঙ্গুলীকে ব্রাণ্ড এম্বাসাডর নিয়োগ করল পিরামল এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড

হীরক মুখোপাধ্যায় (২৪ ফেব্রুয়ারী '২০):- ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক তথা বর্তমানে বিসিসিআই-এর সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী-কে ব্রাণ্ড এম্বাসাডর নিয়োগ করল… Read More

10 hours ago

মা ও মেয়েকে খুনের অভিযোগে দুই অপরাধীকে ১৪ দিনের পুলিসি হেপাজত

হীরক মুখোপাধ্যায় (২৪ ফেব্রুয়ারী '২০):- উ: ২৪ পরগণার নিউ ব্যারাকপুরের বাসিন্দা মা ও মেয়েকে জ্বালিয়ে মেরে দেবার অভিযোগে হলদিয়া আদালত… Read More

18 hours ago

নদিয়ায় এক মানসিক ভারসাম্যহীন প্রতিবন্ধী ব্যাক্তির ওপর অ্যাসিড হামলার আভিযোগে গ্রেপ্তার ১

স্নেহাশীষ মুখার্জি,নদীয়া(২৩ ফেব্রুয়ারী): এক মানসিক ভারসাম্যহীন প্রতিবন্ধী ব্যক্তির উপর অ্যাসিড হামলার অভিযোগ উঠল প্রতিবেশী যুবকদের বিরুদ্ধে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগের ভিত্তিতে… Read More

2 days ago

গোয়ায় ভেঙে পড়ল মিগ ২৯ কে, জীবিত বৈমানিক

হীরক মুখোপাধ্যায় (২৩ ফেব্রুয়ারী '২০):-আজ সকাল সাড়ে দশটার দিকে গোয়ার কাছে ভেঙে পড়ল ভারতীয় বায়ুসেনার এক মিগ-২৯ কে বিমান। পরে… Read More

2 days ago

ভাষা দিবসেই ধিক্কার পাতিরাম-কে

ঋদ্ধি ভট্টাচার্য, কলকাতা:- পশ্চিমবঙ্গ তথা ভারতের একটি রাজ্য। তারই রাজধানী আমাদের শহর কলকাতা। কথিত আছে বাংলায় যা আঞ্চলিক বই আছে… Read More

2 days ago

শিবরাত্রির পুণ্যতিথি শুধু ধর্মের বেড়াজালে আটকে নেই

নিজস্ব প্রতিনিধি(২২ ফেব্রুয়ারি):  শিবরাত্রির পুণ্যতিথি শুধু ধর্মের বেড়াজালে আটকে নেই । শিবরাত্রি ভারতীয় সংস্কৃতিতে ওতপ্রোত ভাবে জড়িয়ে আছে । এই… Read More

2 days ago